আমার চেতনার রঙে রাঙানো এই খেলা ঘরে:

~0~0~! আপনাকে স্বাগতম !~0~0~

*******************************************************************************************************

Tuesday, 5 October 2010

পুজো

( খন ১৯৯৫। পুজোর কদিন আগে মামার বাড়ি গেছি দিন দুয়ের জন্যে। ছেলেবেলা কখনো কখনো পুজোতে মামার বাড়ি যাওয়া, কুশিয়ারা নদির কূলে বিসর্জন দেখার এক আলাদা আমেজ ছিল। কেন জানেন, ওপারেই যে বাংলাদেশ। জকিগঞ্জের হাজারো লোক ওপারে ভিড় জমায় করিমগঞ্জে দেবীর বিসর্জন দেখতে। তখনও আমি বাড়ি ছাড়া হইনি। কিন্তু আঁচ করছিলাম, আমাকে  মাথুর যাত্রা করতে হবে। মন বিষন্ন ছিল। তেমনি একরাতে কোনো এক কাগজে শালিমার তেলের এক বিজ্ঞাপনে দেখলাম, পুজো মানে...। ধুর এ আবার কবিতা বুঝি। আমি ওদের কবিতাটা শুদ্ধ করে দিলাম এরকম । এতে অবশ্যি করিমগঞ্জ নেই। আছে শিলচর।  লেখা হয়েছিল ১১ থেকে ১৪ অক্টোবর, ৯৫)

শিশির ভেজা শিউলি তলে
রোদের লুটোপুটি;
পুজো মানেই ভিড়ের ট্রেনে
জানালা তোলা ছুটি

পুজো মানেই ঘরের টানে
বাঁধন যত ছেঁড়া;
কাশের বনে পথ হারিয়ে
ছেলে বেলায় ফেরা।

পুজো মানেই সে কবেকার
প্রেমতলার মোড়;
তনুদীপুর সাথে সেবার
মিশন রোডে ভোর

ছোট বৌদি চায়ের কাপে
কত দিনের পর;
পুজো মানেই, কোথায় থাকে
তরুণিমার বর?

এবং তারপর...

বিসর্জনে ঢাকের কাঠি
বেলুন সাদা লালে;
স্টেশন জুড়ে ধোঁয়া এবং
টোল পড়ে না গালে।




LinkWithin

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...

Google+ Badge